ভেনিসে ধনীদের অভিনব, রহস্যময় এক উৎসব, যা সাধারণ মানুষের ধরাছোঁয়ার বাইরে ।

Advertisemen
উৎসব মানেই দুঃখকষ্ট, দুশ্চিন্তা ভুলে গা ভাসিয়ে দেওয়া৷ প্রায় সব দেশে, সব সংস্কৃতিতে নানা ধরনের উৎসবের চল রয়েছে৷ ইটালির ভেনিস শহরে বিখ্যাত কার্নিভালের অনুপ্রেরণায় চলছে সাধারণ মানুষের ধরাছোঁয়ার বাইরে অভিনব, রহস্যময় এক উৎসব৷
কমাত্র জলপথেই অতিথিরা খালপাড়ের অট্টালিকা ভবনে৷ সেখানেই বাৎসিরক ‘বালো দেল ডোজে'-এর মঞ্চায়ন হয়৷ ভেনিস শহরের এক কিংবদন্তির অনুপ্রেরণায় লেখা এই নাটক৷ আজ প্রায় ৪০০ অতিথি এসেছেন, সবাই ছদ্মবেশে৷ কস্টিউম ছাড়া প্রবেশ যে নিষেধ! ইটালীয় অভিনেত্রী মোনিকা মিলানেসে-ও তাঁদের মধ্যে আছেন৷ এই নিয়ে দ্বিতীয় বার তিনি এখানে এসেছেন৷ মোনিকা বলেন, ‘‘আপনার মনে হবে, আপনি যেন একটি চলচ্চিত্রের মধ্যে রয়েছেন৷ শুধু দর্শক হিসেবে নয়, গোটা পরিবেশে নিজেকে জড়িয়ে ফেলেছেন৷''
আন্টোনিয়া সাউটার পরিচালনার দায়িত্বে রয়েছেন৷ গত ২১ বছর ধরে তিনি গোটা অনুষ্ঠানের আয়োজন করে আসছেন৷ প্রশিক্ষণপ্রাপ্ত এই কস্টিউম ডিজাইনার শুধু শো-এর কস্টিউম তৈরি করেন না, অতিথিদের পোশাকও আসে তাঁর কাছ থেকে৷ একমাত্র আন্টোনিয়া সাউটার-এর তৈরি পোশাক পরেই ‘বালো দেল ডোজে'-তে অংশ নেওয়া যায়৷ আন্টোনিয়া সাউটার বলেন, ‘‘এই সব কস্টিউম আপনাকে অন্য জগতে নিয়ে চলে যায়, কল্পনার জগতে৷ এই জগত বড়ই মনোরম৷ এখানে সবাই নিজেকে যে কোনো রূপ দিতে পারেন, যেমন খুশি আচরণ করতে পারেন৷''
পাঁচ দিন আগে মোনিকা মিলানেসে আন্টোনিয়া সাউটার-এর স্টুডিওতে নিজের জন্য কস্টিউম খুঁজতে গিয়েছিলেন৷ দেড় হাজারেরও বেশি পোশাক সেখানে রয়েছে৷ ১৯৯৪ সাল থেকে সাউটার ‘বালো দেল ডোজে'-এর মঞ্চায়ন করে চলেছেন৷ প্রতি বছরই নতুন পোশাক ও মুখোশ যোগ হয়৷ ভেনিসের ঐতিহ্যবাহী কস্টিউম থেকেই অনুপ্রেরণা পান তিনি৷ সাউটার বলেন, ‘‘আমার কস্টিউম কখনো অতীত ও আধুনিক যুগের মিশ্রণ, আবার ভবিষ্যতের ছোঁয়াও থাকে৷''
কয়েক ঘণ্টা ধরে আলোচনার পর মোনিকা মিলানেসে অবশেষে পছন্দের একটি পোশাক খুঁজে পেয়েছেন৷ তিনি বলেন, ‘‘এটির মধ্যে কার্নেভালের ছাপ রয়েছে, অথচ রুচিশীল এবং নারীসুলভ৷ মনে হয় যেন হীরার নেকলেস পরেছি৷''
এমন পোশাকের ভাড়া এক হাজার ইউরো পর্যন্ত হতে পারে৷ টিকিটের মূল্য আড়াই হাজার ইউরো পর্যন্ত হতে পারে৷ এই অঙ্কের অর্থ দিলে টিকিটের সঙ্গে ৫ কোর্স ভোজও পাওয়া যায়৷ অতিথিদের প্রতিক্রিয়া কী? কেউ বলেন, ‘‘প্রচণ্ড দাম, হাস্যকর ব্যাপার, কখনো আর এমন করবো না৷'' তবে আরেকজনের মতে, স্বপ্ন সস্তার হতে পারে না, স্বপ্নের দাম স্থির করা যায় না৷ সেই সুরে সুর মিলিয়ে আরেক দর্শক বলেন, ‘‘জীবন ও উত্তেজনার সৌন্দর্য এমন এক বিষয়, যার জন্য পয়সা খরচ করতে খারাপ লাগে না৷''
অনেক অতিথি মুখোশের আড়ালে মুখ লুকিয়ে রাখেন৷ বিশেষ করে খ্যাতিমান লোকেরা একটি সন্ধ্যায় নিজেদের পরিচয় গোপন রাখতে চান৷ খ্যাতিমান অথবা সাধারণ – সব অতিথিই অন্যের ভূমিকায় এক খেলায় মেতে উঠে মজা পান৷ একজন বললেন, ‘‘আমি নিজের জিনস ও সোয়েটার না পরায় নিজেকে আরও সুন্দর লাগছে, অ্যাডভেঞ্চারের জন্য আমি আরও প্রস্তুত৷''
ইটালীয় অভিনেত্রী মোনিকা মিলানেসে বলেন, ‘‘বাতাসে একটা ‘স্পিরিট' টের পাচ্ছি৷ ভেনিসের কার্নিভালের আবহ সৃষ্টি হয়েছে৷''
অন্য কোথায় স্বয়ং কাসানোভা-র সঙ্গে ফ্লার্ট করার সুযোগ পাওয়া যায়? একমাত্র ‘বালো দেল ডোজে'-তেই তা সম্ভব৷ মোনিকা মিলানেসে-র কাছে এ যেন অতীতের আড়ম্বরের জগতে বেড়াতে যাবার মতো অভিজ্ঞতা৷
Advertisemen

Disclaimer: Gambar, artikel ataupun video yang ada di web ini terkadang berasal dari berbagai sumber media lain. Hak Cipta sepenuhnya dipegang oleh sumber tersebut. Jika ada masalah terkait hal ini, Anda dapat menghubungi kami disini.
Related Posts
Disqus Comments